Homeসারাদেশসামনে আসছে রমজান, মুরগির দাম আরও বাড়বে

সামনে আসছে রমজান, মুরগির দাম আরও বাড়বে

সামনে আসছে রমজান, মুরগির দাম আরও বাড়বে।

কয়েক মাস ধরেই চালের দাম চড়া। সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ে আমদানি হলেও চালের দাম কমেনি। সেই সঙ্গে ডাল, মুরগির সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে সবজির দামও। সামনে আসছে রমজান, আরও বাড়তে পারে এসব জিনিসের দাম।

বাজারে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, খুচরা বাজারে ৬৪ টাকা পর্যন্ত কেজিতে মিনিকেট চাল বিক্রি হচ্ছে। মোটা চালও ৫০ টাকার উপরে বিক্রি হচ্ছে। তা ছাড়া কয়েক সপ্তাহ ধরেই চড়া মুরগির বাজার।

কারওয়ান বাজার ঘুরে দেখা যায়, প্রতি কেজি মিনিকেট চাল বিক্রি হচ্ছে ৬২ থেকে ৬৪ টাকায়, নাজিরশাইল ৬৪ থেকে ৬৬ আর আটাশ ৫০ থেকে ৫২ টাকায়। এ ছাড়া অন্যান্য মোটা চালের দামও কেজি ৫০ টাকার উপরে।

মুরগির দাম বৃদ্ধির বিষয়ে কারওয়ান বাজারের ব্যবসায়ী রুবেল মিয়া বলেন, কিছুদিন পরই রমজান মাস। এর মধ্যে পাইকারি বাজারে মুরগির দাম বেড়েছে।

আরো বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আমাদের ধারণা, শবে বরাতের আগেই মুরগির দাম আরও বাড়বে। তবে ডিমের দাম কম রয়েছে।

এ দিকে সরকারের বিপণন সংস্থা টিসিবির ট্রাকে ১৫ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রি হলেও খুচরা বাজারে ৪০ টাকার নিচে পাওয়া যাচ্ছে না।

গত সপ্তাহের তুলনায় কিছু সবজির দাম কেজিতে পাঁচ থেকে ১০ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। আর কিছু সবজির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। গত সপ্তাহের তুলনায় বেড়েছে করলা, বরবটি, টমেটো, চিচিঙ্গা, বাঁধাকপি, বেগুন, শিম, আলুর দাম। প্রতি কেজি করলা কেজিতে ১০ টাকা বেড়ে ৬০ টাকা, বরবটি ৭০ টাকা, টমেটো ২৫ টাকা, চিচিঙ্গা ৬০ টাকা, বাঁধাকপি প্রতি পিস ২০ থেকে ৩০ টাকা (আকারভেদে), বেগুন ৪০ টাকা, প্রতি পিস লাউ আকারভেদে ৫০ থেকে ৬০ টাকা, মিষ্টি কুমড়ার কেজি ৩০ টাকা, লতি ৭০ টাকা, গাজর ৩০ টাকা, শিম ৬০ টাকা, আলু ২০ টাকা কেজি। আর কাঁচকলার হালি ৩০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এ ছাড়া কাঁচা মরিচ বিক্রি হচ্ছে কেজি ৭০ টাকা, পেঁপে ৩০ টাকা, পটল ৮০ টাকা, ঢেঁড়স ৭০ টাকা, খিরাই ৪০ টাকা, শসা ৬০ টাকা, মটরশুঁটি ৫০ টাকা আর লেবুর হালি বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৫০ টাকায়।

এদিকে বাজারে আসা সজনের দাম ১০ টাকা কমে এখন বিক্রি হচ্ছে কেজি ৭৫ থেকে ৮০ টাকায়।

তবে গত সপ্তাহে দুই দফা পেঁয়াজের দাম বাড়লেও আজ তা কিছুটা কমেছে। সপ্তাহের ব্যবধানে রাজধানীর বাজারগুলোতে কেজিতে পেঁয়াজের দাম কমেছে ১০ টাকা।

অনলাইন অর্ডার করুন: Ring Light 

দেশি পেঁয়াজের কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৪৫ টাকা। গত সপ্তাহে দুই দফা দাম বেড়ে পেঁয়াজের কেজি ৫০ থেকে ৫৫ টাকায় বিক্রি হয়েছিল।

এদিকে কয়েক সপ্তাহ ধরেই চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে সব ধরনের মুরগি। গত সপ্তাহের মতো ব্রয়লার মুরগির কেজি বিক্রি হচ্ছে ১৫৫ থেকে ১৬০ টাকা এবং লাল লেয়ার মুরগির কেজি বিক্রি হচ্ছে ১৮০ থেকে ২০০ টাকা।  তবে সোনালি বা কক মুরগি ৩২০ থেকে ৩৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

গরু ও খাসির মাংসের বাজারও চড়া। বাজারে প্রতি কেজি খাসির মাংস ৭৫০ থেকে ৮০০ টাকা, গরুর মাংস ৫৮০ থেকে ৬০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

আরও জানুন: বাংলাদেশ আগে যা পারেনি, এবার তা করার দারুণ সুযোগ এসেছে। 

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular