Homeখেলাধুলাপ্রথম সেশনে জোড়া সাফল্য এনে দিলেন ডানহাতি পেসার তাসকিন আহমেদ।

প্রথম সেশনে জোড়া সাফল্য এনে দিলেন ডানহাতি পেসার তাসকিন আহমেদ।

প্রথম সেশনে জোড়া সাফল্য এনে দিলেন ডানহাতি পেসার তাসকিন আহমেদ।

পাল্লেকেলেতে দ্বিতীয় দিনের শুরুটা ভালো হয়নি বাংলাদেশ দলের। প্রথম ঘণ্টায় কোন উইকেটের দেখা পায়নি বাংলাদেশ দল। বাংলাদেশকে ভোগাচ্ছিলেন আগের দিনের সেঞ্চুরিয়ান লাহিরু থিরিমান্নে।

ভয়ংকর হয়ে ওঠা এই ব্যাটস ম্যানকে অবশেষে ফেরালেন তাসকিন আহমেদ। ডানহাতি পেসারের করা বল ডাউন দ্য লেগে খেলতে গিয়ে উইকেটকিপারের হাতে ক্যাচ তুলে দেন থিরিমান্নে।

১৪০ রানে ভাঙে তার প্রতিরোধ। লাহিরু থিরিমান্নের ২৯৮ বলের ইনিংসে ছিল ১৫টি বাউন্ডারি।

আমাদের সাথে থাকার জন্য চ্যানেলটি SUBSCRIBE করুন।

থিরিমান্নের পর ব্যাটিংয়ে নামা অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসকেও টিকতে দেননি তাসকিন। প্রথম সেশনে জোড়া সাফল্য এনে দিলেন ডানহাতি এই পেসার।

টেস্টের প্রথম দিন গতকাল বৃহস্পতিবার এক উইকেটে ২৯১ রান নিয়ে টেস্টের দিন শেষ করেছে শ্রীলঙ্কা। বাংলাদেশের হয়ে কাল একমাত্র উইকেটটি নিয়েছেন বাংলাদেশের ৯৭তম টেস্ট ক্রিকেটার হিসেবে অভিষেক হওয়া শরিফুল ইসলাম।

এদিন টস জিতে ব্যাট করতে নেমে বেশ সাবধানী শুরু করেন দুই লঙ্কান ব্যাটসম্যান করুনারত্নে ও লাহিরু। দুজনে মিলে প্রথম সেশনে স্কোরবোর্ডে তোলেন ৬৬ রান।

ওপেনিংয়ে নেমে উইকেটে থিতু হয়ে যান দিমুথ করানারত্নে। তুলে নেন ক্যারিয়ারের ‌১২তম সেঞ্চুরি। আগের ম্যাচেও বাংলাদেশকে ভোগান এই লঙ্কান অধিনায়ক দিমুথ করানারত্নে। ওই টেস্টে করেন ডাবল সেঞ্চুরি।

ভয়ংকর হয়ে ওঠা এই ব্যাটসম্যানকে ফেরান বাংলাদেশের ৯৭তম টেস্ট ক্রিকেটার হিসেবে অভিষিক্ত শরিফুল ইসলাম।

৯৭তম টেস্ট ক্রিকেটার হিসেবে অভিষিক্ত তরুণ এই পেসারের বলে লিটন দাসের হাতে ক্যাচ তুলে দেন করুনারত্নে। ১১৮ রানে ভাঙে তার প্রতিরোধ।

১৯০ বলে ১৫ চারে সাজানো ছিল তার ইনিংস। অভিষিক্ত শরিফুল ইসলামের নেয়া উইকেটে ভাঙে ২০৯ রানের ওপেনিং জুটি। অবশ্য জুটি ভাঙার আগে রেকর্ড হয়েছে শ্রীলঙ্কার।

বাংলাদেশের বিপক্ষে উদ্বোধনী জুটিতে এটাই তাদের সর্বোচ্চ। ওপেনিংয়ে জুটিতে করুনারত্নে ও লাহিরু মিলে ভেঙেছেন ২০ বছর আগের রেকর্ড। এর আগের রেকর্ডটি হয়েছিল ২০০১ সালে। সেবার ১৪৪ রানের জুটি গড়েছিলেন সনাৎ জয়াসুরিয়া ও মারভান আতাপাত্তু।

আরও জানতে: ক্লিক করুন।

করুনারত্নে ফেরার পর সেঞ্চুরি তুলে নেন লাহিরুও। তাসকিনের বলে এক্সট্রা কাভার দিয়ে বল পাঠিয়ে তিনটি রান নিয়ে ক্যারিয়ারের তৃতীয় টেস্ট সেঞ্চুরি পূরণ করেন লাহিরু। লাহিরুর সেঞ্চুরির পর ফার্নান্দো ও লাহিরু দিনের বাকি সময় নিশ্চিন্তেই পার করেন।

আরও জানুন: ভালো তরমুজ চেনার উপায়।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular